Home

বেশি জল খাওয়াও বিপজ্জনক! কেন?

চিত। না হলে জলের আরেক নাম ‘মৃত্যু’ হতে বেশি সময় লাগবে না! প্রয়োজনের তুলনায় বেশি জল খেলে হঠাত্‍‌ করে বিপজ্জনক ভাবে নেমে যায় শরীরে সোডিয়ামের লেভেল। যার নির্যাস, ব্রেন সোয়েলিং বা মস্তিষ্ক ফুলে যাওয়ার মতো মারণ রোগ হয়।

সেল জার্নালে প্রকাশিত স্টাডিতে উঠে আসছে এমনই তথ্য। গরমকালে শরীরে জলের অভাব হবেই। ফলে ডিহাইড্রেশন থেকে বাঁচতে জল মাস্ট। চিকিত্‍‌সা বিজ্ঞানীরা বলছেন, প্রতিদিন ৮ গ্লাস জল খাওয়া উচিত। তার বেশি নয়। কারণ তার বেশি জল খেলে ওভারহাইড্রেশন হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। ওভারহাইড্রেশন হলেই শরীরের সোডিয়াম লেভেল এক ধাক্কায় নেমে যায়। যার ফলে ব্রেন সোয়েলিং অনিবার্য।

ব্রেন সোয়েলিং বাড়াবাড়ি হলে তা হাইপোন্যাট্রেমিয়ায় পরিণত হয়। যাতে মৃত্যুও হতে পারে। এই রোগটি বেশি দেখা যায় বয়স্ক মানুষদের ক্ষেত্রে। সে ক্ষেত্রে মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার ছাড়া উপায় নেই।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, শরীরে জলের অভাব বা ডিহাইড্রেশন হলে যেমন মস্তিষ্ক সিগনাল দেয়, তেমন ওভারহাইড্রেশন হলেও একই ভাবে ব্রেন জানান দেয়। ব্রেনে ফ্লুইড জমতে থাকে। যা মারাত্মক।

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *